সফল ব্যাক্তিদের অনুসরণ নয়

Share This News

আমরা নিজেদের মাঝে অনুপ্রেরণা সঞ্চয়ের জন্য সফল ব্যাক্তিদের নিয়ে অনেক লেখা পড়ে থাকি।

সে লেখাগুলোতে সফল ব্যাক্তিদের লাইফস্টাইল নিয়ে কথা থাকে। যে লেখাগুলো আপনার বাস্তবিক জীবনে কোন কাজেই আসে না।বরং এই লেখাগুলো আপনার জীবনের রুটিনকে পরিবর্তন করে দেয়।এতে করে আপনি বরং নিয়মানুবর্তীতার পরিবর্তে অনিয়মতান্ত্রিক জীবন ধারন শুরু করেন।

আমি কেন আপনাকে সফল মানুষের লাইফ স্টাইল অনুসরণ না করতে বলি:

প্রত্যেকের জীবন ভিন্নতা রয়েছে-

সফলদের জীবনযাপন আর আপনার জীবনযাপন কখনো এক হতে পারে না।তারা এক সামাজিক অবস্থান থেকে বড় হয়েছে আর আপনি বড় হচ্ছেন অন্য একটি সামাজিক পরিবেশে।তার জীবনের প্রতিকূলতার ধরণ আর আপনার জীবনের প্রতিকূলতার ধরণ এক না।তার জীবন ব্যবস্থা যেমন আপনার জীবন ব্যবস্থা অবশ্যই তা না।তাই সফল হতে সফল ব্যক্তিদের অনুসরণ নয় বরং নিজের ব্যক্তির দিক বিবেচনা করে পথ চলাই হচ্ছে উত্তম।

সফলরা সাধারণ মানুষ থেকে সফল হয়েছে-

আজকে আমরা যাদের সফল হিসেবে দেখতে পাচ্ছি বা যারা সফল তারা কিন্তু হঠাৎ করে একদিনে সফল হয়ে যায় নাই।

তারা প্রথমে তাদের কাজের প্রতি গভীর অনুরাগ থেকে অন্যের থেকে বেশি কাজ করেছে তাই আজকে সফল।তাই তারা আজ যা করছে আমরা ভাবছি তা করলেই আমরা সফল হয়ে যাবও।ব্যপারটা মোটেও এমন না।তারা আজ যা করছে তা সফল হওয়ার পরেই করছে।

সফলরা তার সফলতার পর তাদের লাইফ স্টাইল পরিবর্তন করেছে-

আজকে আমরা অনেক নিউজ মিডিয়া গুলোকে দেখি যারা কিনা সফল ব্যক্তিদের লাইফস্টাইল আমাদের সামনে তুলে ধরছে।আর আমরাও তা অনেকে অনুসরণ করার চেষ্ঠা করছি।ব্যাপারটা মোটেও আপনাকে সফল মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারে না।বলা হয়ে থাকে সফল ব্যক্তিরা তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠে এবং তাড়াতাড়ি ঘুমাতে যায় যদিও এটা ভালো অভ্যাস তবে যারা এখন সফল হয়েছে তারা তাদের কাজের জন্য একসময় অনেক সময় না ঘুমিয়ে কাটাতো।

সফল হওয়ার জন্য আপনাকে অন্যের থেকে ভিন্ন ভাবে চিন্তা করতে হবে ভিন্ন কিছু করতে হবেএবং অন্যের চেয়ে বেশি শ্রম দিতে হবে।

নিজে থেকে আপনাকে অনুপ্রাণিত হতে হব-

আমরা সাধারণত অন্যের থেকে অনুপ্রেরণা  পেয়ে মনে  হয় অসাধ্যকে সাধন করে ফেলবও।কিন্তু এটা আমাদের মস্তিষ্কে বেশি সময় যাবৎ থাকে না।হতো এক দিন অথবা দুই দিন থাকে এর বেশি না।আর কোন কাজে যদি আপনি নিজেকে নিজে অনুপ্রাণিত করতে পারেন তাহলে আপনার সফল হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যাবে।এবং চলার পথে বাধা খুব সহজে অতিক্রম করে নিজের গন্তব্যে পৌছাতে পারবেন।তাই চলার পথে উন্নতির জন্য আমাদের নিজেকে নিজের অনুপ্রেরণা দেওয়াটা খুবই জরুরি।


Share This News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *