লিভার সিরোসিস

Share This News

লিভার সিরোসিস-

 লিভার সিরোসিস লিভারের  সংক্রমিত একটি রোগ। এটি একটি মারাত্মক রোগ। এই রোগে আক্রান্ত ব্যাক্তি বেঁচে থাকার সম্ভাবনা খুব কম থাকে। যখন লিভারের কোষ গুলো ভাইরাসে সংক্রমিত হইয়ে  লিভার আর কাজ করে না তখন লিভারের এই পর্যায়কে বলা হয় লিভার সিরোসিস।

আমাদের লিভারের সংক্রমণের জন্য দায়ী  হেপাটাইটিস, ভাইরাস।

হেপাটাইটিস ভাইরাসকে চার ভাগে ভাগ করা হয় এবং হেপাটাইটিস এ, হেপাটাইটিস বি হেপাটাইটিস সি’ এবং হেপাটাইটিস-ডি  চারটিতেই লিভারের সংক্রমিত হয়।হেপাটাইটিস মূলত এক ধরনের ভাইরাস জনিত রোগ যা লিভারকে আক্রমণ করে।

হেপাটাইটিস-সি লিভারের জটিল ধরনের সংক্রমণ কে বলা হয় আর হেপাটাইটিস সিউ আক্রান্ত হলে লিভার একেবারে অকেজো হয়ে যায় এক্ষেত্রে করণীয় হচ্ছে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট অর্থাৎ নতুন লিভার প্রতিস্থাপন এছাড়া এ রোগের অন্য কোন আরোগ্য নেই তাই লিভার প্রতিস্থাপনে একমাত্র উপায়।

হেপাটাইটিস সি বা লিভার সিরোসিস নীরব ঘাতক এটি শরীরে সংক্রমণ হলে এর প্রাথমিক অবস্থায় কোন ধরনের লক্ষণ প্রকাশ পায় না । যখন এটি খুব মারাত্মক পর্যায়ে চলে যায় তখন ধীরে ধীরে এর লক্ষণগুলো প্রকাশ পেতে থাকে।ফ্যাটি লিভার যাদের রয়েছে তাদের লিভার সিরোসিস হওয়ার ঝুঁকি বহুগুণে বেড়ে যায় যাদের দীর্ঘমেয়াদি ‘বি’ এবং ‘সি’ ভাইরাস সংক্রমণ রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে ১০ থেকে ১৫ শতাংশের লিভার সিরোসিস হয়। এদের মধ্যে বছরে ৫ শতাংশ লোকের লিভার ক্যান্সার হয়।

লিভার সিরোসিসের জন্য প্রধান যে কারণে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে-

 অনিয়মিত খাদ্যাভাস

অতিরিক্ত তেল চর্বি জাতীয় খাবার

অতিরিক্ত মদ্যপান

অনিয়ন্ত্রিত ওজন

ধূমপান করা

 এছাড়া যারা দীর্ঘমেয়াদি জন্ডিসাক্রান্ত তাদের এই রোগের ঝুঁকি বেড়ে যায়

 লিভার সিরোসিস থেকে বাঁচার উপায়-

 বিশুদ্ধ পানি পান করা 

 অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় পরিহার করা।

 জন্ডিস হলে হেপাটাইটিস বি অতি দ্রুত ডাক্তারের শরণাপন্ন।

 হেপাটাইটিস বি টিকা প্রদান।

 মসলাযুক্ত খাবার পরিহার করা।

আমাদের নিয়মিত স্বাস্থ্য তথ্য পান-স্বাস্থ্য কথায়


Share This News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *