মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার আসন বিন্যাস

Share This News

২০২০-২১ শিক্ষা বর্ষে এমবিবিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষায় আসন বিন্যাস সাজানোর কথা চিন্তা ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রেখে। যেহেতু এপ্রিলে দেশ থেকে করোনা পুরোপুরি নির্মূল হচ্ছে না— সেটি মাথায় রেখেই মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার আসন বিন্যাস করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে ন্যুর সংখ্যা দেড় থেকে দুই গুণ বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে মেডিকেল ভর্তি কমিটি। প্রয়োজনে ‘জেড’ আকৃতির সিট প্ল্যান করতে পারে মেডিকেল ভর্তি কমিটি।
ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (স্বাস্থ্য

আরো পড়ুনঃ

রাবির প্রাথমিক ভর্তি আবেদন শুরু ৭ই মার্চ

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা যাচ্ছে তিনটি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষা) ডা. এ কে এম আহসান হাবীব জানায়,
আমরা ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্রগুলোর জন্য একটা নির্দেশিকা তৈরি করব। সেখানে স্বাস্থ্যবিধি মানা, মাস্ক পড়া, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, থার্মাল স্ক্যানার রাখাসহ আরও বেশকিছু বিষয় মানার নির্দেশনা থাকবে।কেন্দ্রের পরচালক এই ব্যাপারে পূর্ণাঙ্গ সিদ্ধান্ত প্রদান করবে।

তিনি আরো বলেন,করোনাার মধ্যে পরীক্ষা হওয়ায় পরীক্ষা কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদের মাঝে ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রেখে পরীক্ষা নেয়া হবে। এজন্য পরীক্ষার ভেন্যুর সংখ্যা গতবারের চেয়ে দেড় থেকে দুই গুণ বাড়ানো হবে।
এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে গত ৮ ই ফেব্রুয়ারি।

উক্ত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা ২০১৯ বা ২০২০ সালে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা যোগ্যতা অনুযায়ী ভর্তি আবেদন করতে পারবেন। তবে ২০১৭ সালের আগে এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা আবেদনের যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন না।
উক্ত বিজ্ঞপ্তিতে ভর্তি পরীক্ষার যোগ্যতা হিসেবে ধরা হয়েছে,দেশ কিংবা বিদেশে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা এসএসসি বা সমমান এবং এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় মোট জিপিএ কমপক্ষে ৯ হতে হবে।ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও পার্বত্য জেলার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে মোট জিপিএ কমপক্ষে ৮ হতে হবে। জীববিজ্ঞানে ন্যূনতম গ্রেড পয়েন্ট ৩ দশমিক ৫০ থাকতে হবে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায়।

পরীক্ষার মানবন্টন-


সময়কাল এক ঘণ্টা।
একশটি এমসিকিউ প্রশ্নের (প্রতিটির মান ১)।
জীববিজ্ঞানে ৩০,
রসায়নবিদ্যায় ২৫,
পদার্থবিদ্যায় ২০,
ইংরেজিতে ১৫
সাধারণ জ্ঞান, ইতিহাস ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ১০ নম্বর থাকবে।

ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়াঃ


১১ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা থেকে আবেদন শুরু হয়ে চলবে ১ মার্চ রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। টেলিটক প্রিপেইড সিমের মাধ্যমে এক হাজার টাকা জমা দিয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতরের নির্দেশনা অনুযায়ী আবেদনপত্র পূরণ করতে পারবে।


Share This News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *