বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতিবাদ বিজ্ঞপ্তি

Share This News

অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টার’স ম্যান’ আলজাজিরা কতৃক শীর্ষ্ক প্রতিবেদন
নিয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতিবাদ বিজ্ঞপ্তি।

কাতার ভিত্তিক টেলিভিশনে প্রচারিত হয় ‘অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টার’স ম্যান’
প্রতিবেদনটি কল্পনাপ্রসূত ও অসৎউদ্দেশ্য বলে মনে করে সেনাসদর। এবং সেনা সদর এই ব্যাপারে তীব্র প্রতিবাদ জানায়।
যারা এই প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছে তারা স্বার্থন্বেষী , এই প্রতিবেদনের তাদের মূল উদ্দেশ্যই হচ্ছে দেশকে অস্থিতিশীল করা।
যারা এই প্রতিবেদনে অংশগ্রহণ করে তারা বাংলাদেশে বিভিন্ন অপরাধে অভিযুক্ত।
প্রতিবেদনটি যাদের মাধ্যমে তৈরি করা হয়েছে এদের মধ্যে একজন ডেভিড বার্গম্যান , যে কিনা আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল কর্তৃক দন্ডিত একজন অপরাধী।
দ্বিতীয় ব্যাক্তি হচ্ছে জুলকারনাইন সায়ের খান প্রতিবেদনে যার ছদ্মনাম ছিলো সামি, যে মাদকাসক্তির অপরাধে বাংলাদেশ মিলিটারী একাডেমি থেকে বহিস্কৃত একজন ক্যাডেট ।
এবং অন্য জন একজন অখ্যাত মিডিয়ার সাংবাদিক তাসনীম খলিল ।
এই তিনজন আলজাজিরা কতৃক সংবাদের কুলষিত চরিত্র বলে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদর দপ্তর কতৃক প্রতিবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করে।

সেনাবাহিনী তাদের প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলে,
যারা এই প্রতিবেদনে অংশ নিয়েছে তারা নিজেদের মধ্যে যোগসুত্র স্থাপন করে বাংলাদেশ বিরোধী কার্যক্রমে নিয়োজিত রয়েছে।


বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে- আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন একটি সংবাদ চ্যানেলের সাথে মূলধারার সাংবাদিকতা থেকে বিচ্যুত ও অশুভ চিন্তাধারার এ সকল ব্যক্তিবর্গের যোগসাজশের বিষয়টি অনাকাঙ্খিত ও বোধগম্য নয়।
দেশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের ভিডিও ক্লিপ ও ছবি চাতুর্যের সাথে সংগ্রহ করে তা এডেটিং করে তা ভিন্নদিকে উপস্থাপন করেছে ।


বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিন্দা জানায় তাদের প্রতিবেদন উল্লেখিত একটা মিথ্যা তথ্য যা ছিলো, ‘বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক ইসরায়েল থেকে ইন্টারনেট ও মোবাইল মনিটরিং সরঞ্জামাদি ক্রয় সংক্রান্ত।
প্রকৃতপক্ষে যা ছিলো হাঙ্গেরির একটি কোম্পানী থেকে ক্রয়কৃত যা মূলত কেনা হয়েছে শান্তিরক্ষা মিশনে ব্যবহারের জন্য।
ক্রয়কৃত সরঞ্জাম কিংবা এ সংক্রান্ত কোন নথিপত্রেই এগুলো ইসরায়েলের তৈরী বলে উল্লেখ নেই।

আরো উল্লেখ করা হয়েছে , বাংলাদেশের সাথে ইসরাইলের কোন কুটনৈতিক সম্পর্ক নেই সুতরাং ইসরাইল থেকে কোন সরঞ্জাম ক্রয় করা প্রশ্নই আসে না।মিথ্যা এই প্রতিবেদনটির ফলে রাষ্ট্রের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বিভেদ ও দূরত্ব সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের সমৃদ্ধি ও অগ্রগতির পথে বাঁধা সৃষ্টির একটি অপপ্রয়াস হিসেবে মনে করে।


বর্তমান বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বাংলাদেশের সরকার ও সংবিধানের প্রতি পূর্ণ আস্থাশীল।
বর্তমানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী চেইন অব কমান্ডের অধীনে এই সুশৃঙ্খল বাহিনী।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দেশের উন্নয়ন ও সেবার কাজে সর্বদা নিয়োজি


Share This News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *