বাংলাদেশীরা বছরে এক কোটি টনেরও বেশি খাবার অপচয় করে: ইউএনইপি

Share This News

নাইরোবি ভিত্তিক জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচির (ইউএনইপি) খাদ্য বর্জ্য সূচক প্রতিবেদন-২০২১ অনুসারে একজন বাংলাদেশী গড়ে সাধারণভাবে বাড়িতে ৬৫ কেজি খাবার নষ্ট করে।

৪ মার্চ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে অনুমান করা হয়েছে যে বাংলাদেশের বার্ষিক খাদ্য বর্জ্য এক কোটি টনেরও বেশি । এ রিপোর্ট টি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহের অধীনে ২০৩০ সালের মধ্যে খাদ্য বর্জ্য অর্ধেক করার বিশ্বব্যাপী প্রচেষ্টাকে সমর্থন করার জন্য করা হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী মাথাপিছু খাদ্য বর্জ্য এক বছরে ৭৪ কেজি হিসেবে অনুমান করা হয়েছে, যা প্রতিবেদনে “নিম্ন ও উচ্চ-আয়ের উভয় ক্ষেত্রেই লক্ষণীয়ভাবে সমান” হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে।

প্রতি বছর বিশ্বব্যাপী কমপক্ষে ৩.১০ কোটি টন খাদ্য অপচয় হয়, যা মোট খাদ্য উৎপাদনের ১৩ শতাংশ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাপী সর্বমোট ৫৭ কোটি টন খাদ্য বর্জ্য বসত-বাড়ি থেকে আসে, যা বিশ্বব্যাপী খাদ্য উতপাদনের ১১ শতাংশ, পাঁচ শতাংশ আসে খাদ্য পরিসেবা থেকে এবং দুই শতাংশ খুচরা প্রতিষ্ঠান থেকে।

ভারতে মাথাপিছু খাদ্য বর্জ্য প্রতি বছর ৫০ কেজি অনুমান করা হয়, এটি দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সর্বনিম্ন। তবে ভারতের মোট বার্ষিক বর্জ্য প্রায় ৬,৮৭,৬,১৬৩ টন যা দক্ষিণ এশিয়ায় সর্বোচ্চ।

বার্ষিক মাথাপিছু খাদ্যজনিত বর্জ্য সর্বাধিক ৭৬ কেজি শ্রীলঙ্কায় শ্রীলঙ্কায় মোট বর্জ্য বছরে ১৬,১৭,৭৩৮ টন যা এই অঞ্চলে সর্বনিম্ন ।

বাংলাদেশের পক্ষে জাপান আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থা (জাইকা) জাতিসংঘের সহযোগিতায় প্রতিবেদন প্রস্তুত করতে চট্টগ্রামে গবেষণা চালিয়েছিল।


Share This News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *